গাড়ির জগতে আমূল পরিবর্তন নিয়ে আসে যে ১৫টি সেরা ডিজাইন!

09/02/2015

গাড়ির আবিষ্কার মানুষের জীবনে নিয়ে আসে এক অভাবনীয় পরিবর্তন। আজকের নতুন নতুন সব গাড়ির মডেল দেখে আমরা কতই না আহ্লাদিত হই, উচ্ছাস প্রকাশ করি। কিন্তু এইসব অভিনব ডিজাইনের আগেও যে ডিজাইন গুলো মানুষ ধীরে ধীরে উন্নত করে আজকের এই অবস্থায় এসেছে সেগুলো জেনে নেয়া যাক এক ঝলকে!

১। BENZ’S PATENT-MOTORWAGEN – 1885 – বেনয পাট্যান্ট এর মটর ওয়াগেন গাড়িটী ছিল পৃথিবীর সর্ব প্রথম গাড়ী। এর আগে মানুষ ঘোড়া কিংবা ঘোড়ার গাড়িতে যাতায়াত করত।

২। FORD’S MODEL T – 1908 – হেনরি ফোর্ড এর সারা জাগানো এই ফোর্ড মডেল এর গাড়িটি বিশ্বে ব্যাপক ভাবে আলোড়োন সৃষ্টি করেছিল। যে তিনটি কারনে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল ফোর্ড – গাড়ি ইন্ডাস্ট্রিতে assembly line এর সাথে পরিচিতি, মধ্যবিত্ত মানুষদের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে ছিল, worldwide car market এ ওপেন করে দিয়েছিল।

৩। CADILLAC’S TOURING EDITION – 1912 – ফোর্ড আবিষ্কারক হেনরি ফোর্ড ক্যাডিলাক এর ফাউন্ডার হলেও খুব অল্প সময়েই কোম্পানি ত্যাগ করেন।এরপর কোম্পানিটি ১৯১২ সালে ক্যাডিলাক এর ডিজাইন পরিবর্তন করে Cadillac Touring Edition বের করে।

৪।ESSEX’S CLOSED COACH – 1918 – ১৯১৮ সালে হাডসন মটর কোম্পানি তৈরি করে এসেক্স। গাড়ি আবিষ্কারের ৪ বছরের মাথায় এসেক্স আবিষ্কার ছিল ক্রেতাদের জন্য খুবই এফরডেবল এবং জনপ্রিয় একটি গাড়ি।

৫।  FORD’S MODEL 18 – 1932-ফোর্ড মডেল ১৮ তে প্রথম ড্রাইভার এর লেন আবিষ্কৃত হয়। এর বিশেষ বৈশিষ্ট ছিল V8 engine।

৬। BUICK’S Y-JOB – 1938 – ১৯৩৮ সালে প্রথম কন্সেপ্ট কার হিসেবে আত্ম প্রকাশ করে বিক’স ওয়াই জব।গাড়ির ডিজাইনে নিয়ে আসে আমূল পরিবর্তন। তার সাথে টেকনোলোজির সর্বোচ্চ প্রয়োগ হয় এই গাড়ির ডিজাইনে। কাস্টমারকে দৃস্টি নন্দন ডিজাইনের পাশাপাশি টেকনোলজিক্যাল এক্সপেরিয়েন্স দিয়ে মন জয় করে নেই এই মডেলটি্টি। যেমন- power electric windows,  pop-up headlights,  flush door handles, wraparound bumpers এবং styling characteristics।

৭। VOLKSWAGEN’S BEETLE – 1938 – জার্মান কোম্পানি Volkswagen আবিষ্কার করে বিটল। ছোট, সিম্পল, রিলায়েবল এবং inexpensive car হিসেবে বেশ ভালো মার্কেট তৈরি করতে পেরেছিল বিটল। দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের পর ১৯৪৫ সালের দিকে বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এই গাড়িটি।

৮। BANTAM’S JEEP – 1940 – পেনিসেল্ভেনিয়ার বাটলার এ American Bantam Car Company তৈরি করে বেন্টাম জিপ। গাড়িটী মিলিটারিদের জন্য তৈরি করা হয়েছিল। এই গাড়িটী বনে, জঙ্গলে, মরুভুমি কিংবা পাহাড়ে যাওয়ার মতো উপযুক্ত করে বানানো হয়েছিল। এবং এখনও এই মডেলটি প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাবহারিত হচ্ছে।

৯। BMC’S MINI – 1959 – ছোট গাড়ির মার্কেটে BMC Mini গাড়িটি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল।  এর transverse front-engine এর কারনে ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে বিএম’স মিনি বেশ পপুলার হয়ে ওঠে।

১০। COOPER’S T43 – 1957 – ১৯৫৭ সালে প্রথম Cooper T43 রেসিং কারটি তৈরি করা হয়।

১১। FORD’S MUSTANG – 1964 – ১৯৬৪ সালে ফোর্ড মাস্তাং তৈরি করা হয়। নতুন ডিজাইন এর মধ্যে ভিন্ন স্বাদ নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছিল Ford Mustang। এর compact-sized economy platform এর মধ্যে ডিজাইনের মুল বৈশিষ্ট ছিল longer hood এবং  shorter deck।

১২। CHEVY’S EL CAMINO SS 454 LS6 – 1970 – ১৯৫৯ সালের এল ক্যামিনো বিশাল রেভুলশন ঘটায় ১৯৭০ সালের CHEVY’S EL CAMINO SS 454 এর নতুন ডিজাইনের মধ্যে দিয়ে। ইন্টেরিওর এবং এক্সটেরিওর ডিজাইনে ক্যামিনো এস এস নিয়ে এসেছিল এক অন্যরকম আভিজাত্য।

১৩। AUDI’S SPORT QUATTRO – 1980- প্রথম র‍্যালি কার হিসেবে AUDI’S SPORT QUATTRO আত্মপ্রকাশ ঘটায় 1980 সালে। AWD rally competitions এর স্পোর্টস কার হিসেবে এটা বেশ খ্যাতি লাভ করে।

১৪। CHRYSLER’S MINIVAN – 1984 – ফ্যামিলি কার এর জন্য প্রথম যে কারটি সবার মধ্যে জায়গা করে নিয়েছিল সেটা হচ্ছে CHRYSLER’S MINIVAN । এক বছরের মাথায় সেটা স্টেশন ওয়াগনে রূপান্তরিত হয়েছিল বলে মিনিভ্যান টি আর বেশী প্রোডাকশন করতে পারেনি।

১৫। TOYOTA’S PRIUS – 1997 – ১৯৯৫ সালে টোকিও মটর শোতে টয়োটা শো করে তাদের প্রথম হাইব্রিড কন্সেপ্ট। বছরখানেক টেস্টিং এর পর টয়োটা নিয়ে আসে Prius, model NHW10। এই গাড়ির এট্রাক্টিভ লুক এবং টেকনোলজির দিকটি বেশ সারা ফেলে দেয় গাড়ির জগতে। California Air Resources Board এবং EPA গাড়িটী সম্পপর্কে  সবচেয়ে পরিচ্ছন্ন বলে সর্বোচ্চ রেটিং দিয়ে মতামত দেয়।

 

Tech Desk – Techmorich