আপগ্রেড: ওয়েব ডিজাইনার টু ইউ এক্স ডিজাইনার

08/23/2015

“ইউ এক্স” কি, এর প্রয়োজনীয়তা ও প্রয়োগবিধি ইত্যাদি নিয়ে ইতিমধ্যেই অনেক আলোচনা করা হয়েছে। কিন্তু অনেকের মধ্যে এখনও পর্যন্ত একটি বিষয় নিয়ে সংশয় কাজ করছে। সেটা হচ্ছে যদি ওয়েব ডিজাইনার এবং ইউ এক্স ডিজাইনার দুজন’ই সাইট ডিজাইন করে থাকে তাহলে তাদের মধ্যে পার্থক্যটা কোথায়? সংক্ষেপে চলুন জেনে নেয়া যাক, ওয়েব ডিজাইনার এবং ইউ এক্স ডিজাইনার এর মধ্যে আসলে তফাৎটা কোথায়?

আপাতদৃষ্টিতে ওয়েব ডিজাইনার এবং ইউ এক্স ডিজাইনার দুজন’ই ওয়েব সাইট ডেভেলপ এর কাজ করলেও, এই দু’পেশার মধ্যে কাঠামোগত একটি বৈশিষ্ট আছে এবং কিছু উল্লেখযোগ্য পার্থক্য বিরাজমান।

ওয়েব ডিজাইনার যেভাবে কাজগুলো করে থাকে – 

কাজের রিকোয়ারমেণ্ট নিয়ে ডিজাইন তৈরি করে কোড করা শুরু করে। এক্ষেত্রে তার কাজটিতে এক্সপ্লোর করার জায়গাটা সীমিত থাকায় সে অল্প কিছু বিষয়ের উপর লক্ষ্য রাখে যেমন ক্রিয়েটিভিটি, ভিজুয়াল ডিজাইন এবং ডিজাইন এর ইন্সপিরিশন ইত্যাদি। তাছাড়া ওয়েব ডিজাইনার মূলত কোন রিসার্চ ছাড়াই সরাসরি পিএসডি থেকে এইচটিএমএল এ ডিজাইনটি করে।

একজন ওয়েব ডিজাইনারযে যে বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করে –

গ্রাফিকাল ইন্টারফেস ডিজাইন টা আগে তৈরি করে, কালার স্কিম নিয়ে কাজ করে, ইন্টারফেস ডিজাইন করে, ফটোশপ/ইলাস্ট্রেটর এ কাজ করে, নেভিগেশন ডিজাইন করে, ফাইল প্রিপারেশন করে এবং এইচ, টি এম এল, সি এস এস ও জাভাস্ক্রিপ্ট প্লাগিন নিয়ে কাজ করে।

ইউ এক্স ডিজাইনার যেভাবে কাজগু্লো করে থাকে –

কাজের রিকোয়ারমেণ্ট বুঝে নিয়ে আগে পুরো কাজটা সম্পর্কে চিন্তা করে। যাদের জন্যসাইটটি তৈরি করছে মানে ইউজারদের গ্রুপ, টেস্ট, বিহেভিওর, সাইকলজি ইত্যাদি সব বিষয়গুলো নিয়ে রিসার্চ করে।

একজন “ইউএক্স ডিজাইনার” যে যে ভাবে কাজগুল সম্পন্ন করে –

প্রথমে স্কেচ করে/ওয়ারফ্রেমস, প্রোটোটাইপ তৈরি করে, পারসনা ডেভেলপ করে, ইউজার এর সামগ্রিকঅবস্থা নিয়ে গবেষণা করে, নেভিগেশন এলিমেন্টস নিয়ে কাজ করে, সাইট ম্যাপ তৈরি করেএবং সাইট অডিট করে। এইচটিএমএল, সিএসএস ও জাভাস্ক্রিপ্ট প্লাগিন নিয়ে কাজ করার পাশাপাশি কন্টেন্ট স্ট্রেটেজি নিয়ে কাজ করে।

সার সংক্ষেপে বলা যায়, ওয়েব ডিজাইনার এর এডভান্সড লেভেল’ই হচ্ছে ইউ এক্স ডিজাইন। স্পেশালাইজেশন এর এই যুগে, কাজের ক্ষেত্র বিশেষে এখন প্রতিটি কাজ আলাদা করে এক্সপার্টদের এসাইন করা হয়। ইনফরমেশন টেকনোলজির এই বিশাল সমুদ্রে ওয়েব সাইটগুলো এখন আর শখের বা নাইস টু হ্যাভ এর মতো কোন বিষয় নয়। এখন মানুষ এতটুকু বুঝেছে যে, যেহেতু ইউজারকে কেন্দ্র করে তৈরি করা হয় সাইট গুলো সেজন্য সাইট এর প্রতিটি পিক্সেল, প্রতিটি কর্নার, কন্টেন্ট অতিশয় গুরুত্তপুর্ন।

সময়ের প্রয়োজনে এবং টেকনোলজির নিত্ত নতুন আপগ্রেশন এর কারনে নিজেকেও আপডেট করা ছাড়া কোন বিকপ্ল নেই। এটা ওয়েব ডিজাইনারদের জন্য খুশির খবর যে, তারা তাদের স্কিল নিয়ে অলরেডি কয়েক ধাপ এগিয়ে আছে। তাই তাদের উচিৎ অনতিবিলম্বে ইউএক্স ডিজাইনার হিসেবে দ্রুত এডিশনাল স্কিলগুলো রপ্ত করে ফেলা।

কিভাবে নিজেকে আপগ্রেড করবেন ইউ এক্স ডিজাইনার হিসেবে? 

অনলাইনে প্রচুর রিসোর্স আছে। প্রতিদিন জানুন, পড়ুন ইউএক্স সম্পর্কে। পাশাপাশি থিউরক্যাল জ্ঞান আহরন করা ছাড়াও যতক্ষণ না হাতে কলমে প্র্যাকটিস করে নিজে সম্পুর্ন একটি ইউ এক্স এর আদ্যপান্ত দিক বিশ্লেষণ করে ধাপ ধাপে একটি সাইট তৈরি করতে পারছেন ততক্ষন কিন্তু আপনার জ্ঞান কোন কাজেই আসছে না। সেজন্য প্রফেশনাল ট্রেইনিং এর সাহায্য নিতে পারেন।

টেক এডিটরিয়াল – টেকমরিচ