যখন তখন এলার্জি বা Rash নিয়ে ভুগ ভোগান্তি!

10/21/2015

আমরা প্রায়শই নানাসময়ে স্কিনে Rash উঠতে দেখি। Rash হচ্ছে চামড়ার উপরে উঠা একধরনের লাল দানার মতো । ছোট শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ পর্জন্ত যে কারো যে কোন বয়সে Rash উঠতে পারে। Rash একটি অত্যন্ত কমন রোগ যার নির্দিষ্ট কোন diagnosis নেই। Rash হলে চামড়ার মধ্যে প্রদাহ হয়, চামড়ার রঙ পরিবর্তন হয়ে যায়। তবে তা নির্ভর করে Rash এর ধরনের উপর। কমন কিছু Rash এর মধ্যে আমরা যেগুলো সচরাচর দেখতে পাই বা চিনি সেগুলো হল – eczema, poison ivy, hives, and heat rash। আবার কোন Infection এর কারনে fungal, bacterial, parasitic, অথবা viral rash হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিদিন গড়ে তিন হাজারেরও বেশী মানুষ Moles, rashes, hives, ও eczema এর মতো skin disorder এর শিকার হয়। তাই আমাদের ঘাবড়ে না গিয়ে প্রতিকারের জন্য রোগগুলো সম্পর্কে অবগত থাকাটাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

কিছু কমন র‍্যাশ এর Causes, Symptoms, এবং  Signs  –

স্কিন Rashes Caused by Dengue Fever –
আমরা সবাই জানি যে, এডিস মশার কারনে ডেঙ্গূ জ্বর হয়। এর প্রধান যে লক্ষণ প্রকাশ পায় তা হচ্ছে স্কিনে লাল চাক চাক আকারের র‍্যাশ দেখা দেয়। অনেকসময় রোগীর অবস্থা শোচনীয় হলে র‍্যাশগুলো থেকে রক্তক্ষরণও হয়।

স্কিন Rashes Caused by Contact Dermatitis –
বিজ্ঞাপনে মন ভুলানো এড দেখে আমরা অনেকসময় ভালো মন্দ না বিচার করেই স্কিন বা বিউটি প্রোডাক্ট ব্যাবহার করা শুরু করে দেই। ফলাফল স্কিন এলার্জি বা র‍্যাশ। বাজার থেকে যে কোন শ্যাম্পু, ক্রিম, প্রসাধন কিনে ব্যাবহার করার আগে সে সম্পর্কে ভালো ভাবে জেনে নেয়া উচিৎ। এছাড়াও পার্লারে অন্যের ব্যাবহারিত তোয়ালে, চিরুনী এমনকি ফেসিয়াল এর জন্য মাস্ক এর প্রডাক্ট গুলো থেকেও হতে পারে ভয়াবহ স্কিন রিয়েকশন।

স্কিন Rashes Caused by Medication –
ওষুধ যেমন রোগ নিরাময় করে তেমনি কিন্তু অনেক ওষুধের রয়েছে ভয়াবহ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া। তাই ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া হুটহাট কোন ওষুধ সেবন করাটা মোটেও ঠিক নয়। অনেকসময় ড্রাগ নেয়ার ঘন্টা খানেকের মধ্যে বা তারো বেশী সময় পর শরীরের যে কোন জায়গায় এমনকি মুখেও allergic reaction এর কারনে র‍্যাশ উঠতে পারে। তখন সাথে সাথে উচিৎ ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়ে পরবর্তি পদক্ষেপ নেয়া।

স্কিন Rashes Caused by Ringworm –
রিং ওর্ম মানে সোজা বাংলায় গোল কৃমি শোনালেও এটা কিন্তু সেই ওর্ম নয়। এটা হচ্ছে এক ধরনের গোলাকৃতির লাল রঙের fungal infection যা tinea cruris, অথবা jock itch নামেও পরিচিত । রিংওর্ম এক ধরনের আণুবীক্ষণিক জীব যা চামড়ার মৃত কলাতে (টিস্যু) বাস করতে পারে। ফাংগাস বা ছত্রাকের আক্রমণে এই ইনফেকশন হাতের নখ, চুল বা শরীরের যেকোন জায়গায় হতে পারে।

স্কিন Rashes Caused by Scabies
scabies হচ্ছে একধরনের চর্মরোগ। এর ফলে চামড়ার উপরে  একধরনের লাল সংক্রামক চুলকানি বা র‍্যাশ ওঠে। শরীরে এক জায়গায় হলে তা দ্রুত ছড়িয়ে পরতে থাকে। এটা অত্যন্ত ছোঁয়াচে তাই বাসার একজনের হলে অন্যদেরও হবার আশংকা থাকে। তাই বাসার কারো স্কেবিজ হলে তার ব্যাবহারিত কোন বস্তু থেকে দূরে থাকতে হবে এবং কোনপ্রকার শারীরিক  সংস্পর্শ থেকেও দূরে থাকতে হবে।

স্কিন Rashes Caused by Eczema (Atopic Dermatitis)
একজিমা একটি অত্যন্ত কমন বংশগত রোগ। বংশে কারো হাঁপানি বা বাতজর থাকলে সেই পরিবারের ছেলেমেয়েদের একজিমা হবার সম্ভাবনা বেশী থাকে। শরীরের নির্দিস্ট কোন স্থানে প্রথমে লাল র‍্যাশ হয়ে চুলকাতে থাকে পরে ক্রনিক হয়ে সেটা কালো রঙ ধারন করে। একজিমা খুব যন্ত্রণাদায়ক এবং একটি ক্রনিক ডিজিজ। এটা হলে দীর্ঘ দিন চর্ম রোগ বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানে থেকে ওষুধ সেবন এবং ক্রিম বা মলম লাগাতে হয়।

স্কিন Rashes Caused by Staphylococcus –
Staphylococcus হচ্ছে সরাসরি ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে হওয়া এক ধরনের র‍্যাশ। খাবারের কোন ধরনের বিষক্রিয়া থেকে কিংবা শরীরের কোন ক্ষত থেকে চুলকানি সৃষ্টির ফলে এর সুত্রপাত হতে পারে। অনেকসময় এই ইনফেকশনের উৎপত্তি স্থল থেকে পুজ বের হয়ে আরো ভয়াবহ অবস্থা সৃষ্টি হয়।

স্কিন ডিজিজ বা র‍্যাশ এর ধরন আর প্রকারভেদ নিয়ে বলে শেষ করা যাবে না। আমরা চেষ্টা করব স্কিন র‍্যাশ বা এলার্জির উপর ধারাবাহিকভাবে আর্টিকেলগুলো  প্রকাশ করে যেতে।

Source – WebMD, NHhealth, MedicineNet

Tech Writer – Techmorich