ইউজার এক্সপেরিয়েন্স এর পথিকৃৎ “ডন নরম্যান”।

01/01/2018

জনপ্রিয় বই The Design of Everyday Things এর লেখক ডন নরম্যান বা ডোনাল্ড আর্থার নরম্যান। জন্ম- ২৫ ডিসেম্বর, ১৯৩৫। সান দিয়েগোতে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার ডিজাইন ল্যাব এর ডিরেক্টর এবং নেইলসন নরমান গ্রুপের সহ প্রতিষ্ঠাতা ও প্রিন্সিপাল।

হিউম্যান সেন্টার্ড ডিজাইনের পথিকৃৎ ডন নরম্যান এমনই একজন ব্যাক্তিত্ত যার কথা আমরা অল্প কথায় শেষ করতে পারব না। তিনি একই সাথে অনেকগুলো দায়িত্বে কর্তব্যরত আছেন – নেইলসন নরম্যান গ্রুপের কো ফাউন্ডার এবং প্রধান উপদেষ্টা ও বোর্ড মেম্বার, কিনোট স্পিকার ও অনেকগুলো বিখ্যাত বইয়ের লেখক এবং কলামিস্ট।

নরম্যান দু’বার রিটায়ার করেন, প্রথমে ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া (সেখানে তিনি প্রতিষ্ঠাতা এবং ডিপার্টমেন্ট অফ কগ্নিটিভ সায়েন্স এর চেয়ার পার্সন ছিলেন), দ্বিতীয়বার নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি থেকে (সেখানে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ডিজাইন এর প্রফেসর ছিলেন)।

প্রফেসর নরম্যান “ইউজার এক্সপেরিয়েন্স ডিজাইন” নিয়ে ব্যাপকভাবে গবেষণা এবং লিখালিখি করেন। ইউএক্স এর যাদুকর ডোনাল্ড নরম্যান পড়াশনা করেছেন ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং সাইকোলোজি বিষয়ের উপর। তিনি হার্ভার্ড, ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া, নর্থঅয়েস্টার্ন এবং সাউথ কোরিয়া’র কায়েস্ট এর মতো বিশ্ববিখ্যাত সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি মেম্বার ছিলেন।

১৯৫৭ সালে MIT থেকে নরম্যান ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং কম্পিউটার সায়েন্স এর উপর ব্যাচেলর অফ ডিগ্রী সম্পন্ন করেন। এরপর নরম্যান ১৯৬২ সাল পর্যন্ত ইউনিভার্সিটি অফ পেনিসাল্ভেনিয়া থেকে এম এস এবং ডক্টরেট অফ ফিলোসফি ইন ম্যাথমেটিক্যাল সায়কোলজিতে পড়াশোনা শেষ করেন।

গ্রাজুয়েশন শেষ করে নরম্যান হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় এর সেন্টার ফর কগ্নিটিভ স্টাডিজ থেকে পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ সম্পন্ন করে সেই একই বছর লেকচারার হিসেবে ফ্যাকাল্টিতে যোগ দেন। চার বছর হার্ভার্ডে ফ্যাকাল্টি হিসেবে কাজ করার পর ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া, সান দিয়েগোতে সাইকোলজি ডিপার্টমেন্টে এসোসিয়েট প্রফেসর হিসেবে জয়েন করেন। অবশেষে নরম্যান, ডিপার্টমেন্ট অফ কগনিটিভ সায়েন্সের ফাউন্ডিং মেম্বার এবং সায়কোলজি ডিপার্টমেন্টের চেয়ার পার্সন হিসেবে ভার প্রাপ্ত হউন।

১৯৯৩ সালে নরম্যান ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটি থেকে রিটায়ার করার পরে এপল এ “ইউজার এক্সপেরিয়েন্স আর্কিটেক্ট” (“ইউজার একপেরিয়েন্স” পজিশনের টাইটেলটি ব্যাবহারের সূত্রপাত।) হিসেবে জয়েন করার মধ্যে দিয়ে নরম্যানের ক্যারিয়ার এর ধারাটা ভিন্নদিকে মোড় নেয়া শুরু করে। এরপর তিনি এডভান্সড টেকনোলোজি গ্রুপের ভাইস প্রিন্সিপাল হিসেবে যোগ দেন, হিউলেট প্যাকার্ড এর সাথে কাজ করেন এবং ১৯৯৮ সালে জ্যাকব নেইলসন এর সাথে নেইলসন নরম্যান গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করেন। এরপর ২০১০ সালে আবার কমম্পিউটার সায়েন্স এ একাডেমিয়ার প্রফেসর হিসেবে নর্থওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে যোগ দেন। ২০১৪ তে আবার ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট ফর টেলিকমিউনিকেশন এন্ড ইনফরমেশন টেকনোলজির অন্তর্গত নব প্রতিষ্ঠিত ডিজাইন ল্যাবের ডাইরেক্টর হিসেবে যোগ দেন।

পরিশ্রমী আর উদ্যমী ডোনাল্ড নরম্যান সবসময় ভালোবাসেন নতুন নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করতে, ডিজাইন নিয়ে গবেষণা আর কাজের পরিধি বাড়াতে। কাজের তালিকার পাশাপাশি নরম্যানের এওয়ার্ড এর তালিকাটাও বেশ বড়। তিনি ইতালীর ইউনিভার্সিটি অফ পাদুয়া থেকে অনরারি ডিগ্রী লাভ করেন। ২০০১ সালে এসোসিয়েশন ফর কম্পিউটিং মেশিনারি ফেলোতে অভিষিক্ত হউন। এবং ২০০৬ সালে কম্পিউটার এন্ড কগনিটিভ সায়েন্স এ বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন পদক পান। ২০০৯ সালে ডিজাইন রিসার্চ সোসাইটি থেকে অনারারি ফেলো ডিগ্রী লাভ করেন।

বর্তমানে নরম্যান বিভিন্ন কোম্পানির পন্যের প্রযুক্তিগত উৎকর্ষতা বৃদ্ধি এবং ব্যাবসা সম্প্রসারনের কাঠামোগত দিকগুলো সম্পর্কে পরামর্শ দিয়ে সহায়তা করছেন। নরম্যান ডিজাইন স্ট্রাটেজির উপর সবচেয়ে বেশী গুরুত্বারোপ করে থাকেন। ডিজাইন থিঙ্কিং এর মাধ্যমে তিনি ডিজাইনার এবং কোম্পানিগুলোকে বিভিন্ন ইনোভেশনের ক্ষেত্রে পথ নির্দেশ দেন।

ডন নরম্যান এর জনপ্রিয় প্রসিদ্ধ বই এর তালিকা –

• The Design of Everyday Things: Revised and Expanded Edition
• Living With Complexity
• The Design of Future Things
• Emotional Design: Why We Love (Or Hate) Everyday Things
• The Design of Everyday Things
• The Invisible Computer
• Things That Make us Smart: Defending Human Attributes in the Age of the Machine
• Turn Signals Are the Facial Expressions of Automobiles
• User Centered System Design
• Learning and Memory: A Primer
• Perspectives on Cognitive Science
• Explorations in Cognition
• Human Information Processing: Introduction to Psychology
• Models of Human Memory
• Memory and Attention: An Introduction to Human Information Processing